পৃথিবীকে পাশ কাটিয়ে গেল বছরের দ্রুততম গ্রহাণু

সম্প্রতি পৃথিবীর পাশ দিয়ে বিশাল আকারের একটি গ্রহাণু উড়ে গেছে। এটাই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ও দ্রুততম গ্রহাণু। এ ধরনের গ্রহাণু প্রায়ই পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়ে

পৃথিবীকে পাশ কাটিয়ে গেল বছরের দ্রুততম গ্রহাণু
গ্রহাণু

পৃথিবীকে পাশ কাটিয়ে চলে গেল বছরের দ্রুততম গ্রহাণু

সম্প্রতি পৃথিবীর পাশ দিয়ে  বিশাল আকারের একটি গ্রহাণু উড়ে গেছে। এটাই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ও দ্রুততম গ্রহাণু। এ ধরনের গ্রহাণু প্রায়ই পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়ে। তবে সব আমাদের ধারেকাছে পৌঁছাতে পারে না। বায়ুমণ্ডলে ঢোকার পরে গ্রহাণুগুলো প্রচণ্ড বেগে ধেয়ে আসে। ফলে গ্রহাণুতে আগুন ধরে ধ্বংস হয়ে যায়। কিন্তু যে গ্রহাণু আকারে বড় হয়, তা ধ্বংস হয় না। গত ২১ মার্চ পৃথিবী থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে উড়ে যায় এমন একটি বড় আকারের গ্রহাণু। এর নাম ২০০১ এফও ৩২। পৃথিবী থেকে চাঁদের যে দূরত্ব, তার থেকেও প্রায় ৫.২৫ গুণ দূর দিয়ে গ্রহাণুটি চলে গেছে। গ্রহাণুটির বেগ ছিল ঘণ্টায় ১ লাখ ২৪ হাজার কিলোমিটার। নাসার জেপিএলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গ্রহাণুটি ২০০১ সালে প্রথম আবিষ্কৃত হয়। গবেষকেরা দুই দশক ধরে এর অস্তিত্ব সম্পর্কে জানেন। তবে গ্রহাণুটি বিশাল আকারের কারণে সবার নজর কেড়েছে। এটির ব্যাস প্রায় এক মাইল। গবেষকেরা ওই গ্রহাণুপৃষ্ঠ থেকে বের হওয়া আলোর প্রতিফলন বিশ্লেষণ করে এর গঠন সম্পর্কে ধারণা বের করার আশা করছেন। ২০৫১ সালে এটি আবার পৃথিবীর কাছাকাছি আসবে।